1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৫:১৭ অপরাহ্ন

আজ বরেণ্য শিক্ষাবিদ প্রয়াত আবুল কাশেমের ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী

  • আপডেট এর সময় : শুক্রবার, ২৪ জুলাই, ২০২০
  • ১২৭ বার দেখা হয়েছে

কর্ণফুলী প্রতিনিধিঃ
আজ বীর চট্টলার প্রাচীনতম ও ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক,বরেণ্য শিক্ষাবিদ ও প্রথিত যশা ব্যক্তিত্ব প্রয়াত মোহাম্মদ আবুল কাশেম এর ২৫তম মৃত্যুবার্ষিকী। 


তিনি ১৯৩০ সালের ১ জানুয়ারি  চট্টগ্রাম জেলাধীন বোয়ালখালী উপজেলার আহলা সাধার পাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি ১৯৪৫ সালে পি সি সেন সারোয়াতলী উচ্চ বিদ্যালয় হতে ম্যাট্রিকুলেশন,১৯৪৭ সালে কানুনগোপাড়া স্যার আশুতোষ কলেজ থেকে আই.এ; ১৯৫২ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বি.এ এবং ১৯৫৫ সালে বি টি পাশ করেন। 


পরবর্তীতে ১৯৬৮ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে ১ম ব্যাচের ছাত্র হিসেবে ইংরেজি শাস্ত্রে এম এ পাশ করেন। তিনি ১৯৪৭ সালে বোয়ালখালী উপজেলাধীন পি সি সেন সারোয়াতলী উচ্চ বিদ্যালয়ে  প্রথমে সহকারী শিক্ষক হিসেবে যোগদান করেন। 


পরবর্তীতে সহকারী প্রধান শিক্ষক এবং সবশেষে প্রধান শিক্ষক হিসেবে ২৬ বছর শিক্ষকতা করে দায়িত্ব পালন করেছিলেন ১৯৭৩ সালে রাউজান উপজেলার নোয়াপাড়া কলেজে প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ হিসেবে যোগদান করেন।

সবশেষে ১৯৭৬ সালের নভেম্বরে পুনরায় পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ে প্রধান শিক্ষক হিসেবে  যোগদান করে ১৯৯২ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯৩ সালের জানুয়ারি হতে ১৯৯৪ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত একই প্রতিষ্ঠানে রেক্টর হিসেবে দায়িত্ব পালন করে শিক্ষকতার জীবন থেকে অবসর গ্রহণ করেন। 
দীর্ঘ শিক্ষকতা জীবন শেষে ১৯৯৫ সালের আজকের এ দিনে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ইন্তেকাল করে না ফেরার দেশে চলে যান। তিনি বোয়ালখালী উপজেলা শিক্ষক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। ব্যক্তিগত জীবনে তিনি একজন আদর্শ স্কাউট ছিলেন এবং আমৃত্যু স্কাউটিং এর সাথে সম্পৃক্ত ছিলেন। 


তিনি পটিয়া উপজেলা স্কাউটস এর প্রতিষ্ঠাতা কমিশনার ছিলেন এবং আমৃত্যু এ পদে অধিষ্ঠিত ছিলেন। তিনি একজন ভালো আবৃত্তিকার ও নাট্যকর্মী ছিলেন। সিরাজুদ্দৌলা নাটকে জগতশেঠ,পলাশীর পরে নাটকে মীরজাফর এবং বঙ্গে বর্গী নাটকে ভাস্কর পন্ডিত এর অভিনয়ে তাঁর অপুর্ব নাট্যশেলীর বি:প্রকাশ ঘটেছিল। তিনি ছিলেন বহু পাঠ্য পুস্তক প্রণেতা ও সংকলক। তিনি ছিলেন আত্ম প্রচারে বিমুখ। সেটাই ছিলো তাঁর মহিমা। 


তিনি পটিয়া উপজেলার সূচক্রদন্ডী নিবাসী বিশিষ্ট সমাজসেবক ও শিক্ষানুরাগী এবং পটিয়া ক্লাবের  ভূমিদাতা ও পটিয়া আবদুর রহমান সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্যোক্তা মরহুম আহমদ কবির মোক্তার এর জ্যেষ্ট জামাতা। তাঁর প্রথম সন্তান কর্ণফুলী এ জে চৌধুরী কলেজে অধ্যক্ষ হিসেবে কর্মরত,২য় সন্তান এ কে এম শামসুদ্দিন লাভলু পটিয়া সদরে খলিলুর রহমান মহিলা কলেজের ইংরেজি বিভাগে অধ্যাপনায় নিয়োজিত, ৩য় পুত্র  ডা. এ কে এম মহিউদ্দিন মানিক  চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত,৪র্থ পুত্র এ কে এম মঈনুদ্দিন খোকন ইউএনবি ঢাকায় সিনিয়র ডিপ্লোমেটিক করসপন্ডেট হিসেবে নিয়োজিত এবং ৫ম পুত্র এ কে এম আহসান উদ্দিন ডাচ বাংলা ব্যাংক প্রধান কার্যালয়ে কর্মরত আছেন।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর