1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ১১:০৩ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
কর্ণফুলীতে ১৪শ পিচ ইয়াবাসহ বৃদ্ধ গ্রেফতার সোনাতলায় মারপিটের ভিডিও ফেসবুকে ভাইরালঃ ২ আসামী আটক আখাউড়ায় পুকুরে মাটিকাটা কেন্দ্র করে সংঘর্ষে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য নিহত  শাজাহানপুরে ইফার উদ্যোগে ইমাম সম্মেলন অনুষ্ঠিত বাগেরহাটে করোনা উপসর্গে মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু শাহজাহানপুরে মৎস্য চাষীদের মাছের মিশ্রচাষ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক প্রশিক্ষণ উদ্বোধন  সুনামগঞ্জে ভূল চিকিৎসায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ যৌতুক দিতে না পারায় স্বামীর ঘরে ফেরা হল না সুমির শাজাহানপুর চাঙ্গুইর জলাশয় ইজারা বিরোধে আনিত অভিযোগ মিথ্যা শ্রদ্ধা ভালোবাসায় কাজিপুরে মোহাম্মদ নাসিমের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

ধুনটে বালু উত্তোলনের মহা উৎসব

  • আপডেট এর সময় : মঙ্গলবার, ৫ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৩৮৭ বার দেখা হয়েছে

বগুড়ার ধুনটে বাঙ্গালী নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদীর তলদেশ থেকে বালু উত্তোলন করে আসছে বালু ব্যবসায়ীরা। কোন ভাবেই বাঙ্গালী নদী থেকে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন বন্ধ হচ্ছে না। সরে জমিনে দেখা যায়, উপজেলার সদর ইউনিয়নের বথুয়াবাড়ী বাঙ্গালী নদীর ব্রীজের উত্তর পার্শ্বে ডেজার মেশিন দিয়ে ২টি পয়েন্টে ও ব্রীজের দক্ষিন পাশ্বে পেঁচিবাড়ী বাজার পর্যন্ত ৩টি পয়েন্ট থেকে প্রতিদিন অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

বালু উত্তোলনকারীরা হলেন, বালু ব্যবসায়ী উপজেলার জালশুকা গ্রামের ছাকিমের ছেলে হাসানুল করিম পুটু, বথুয়াবাড়ী গ্রামের ইসমাইল হোসেনের ছেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য গোলজার হোসেন ও চৌবাড়ীয়া গ্রামের মোজাম হোসেনের ছেলে রঞ্জু মিয়া। বাঙ্গালী নদী থেকে বালু উত্তোলন করার ফলে নদীর ২ তীরে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। আর ভাঙ্গনের ফলে নদীর তীরের ২ পার্শ্বে শত শত বিঘা ফসলি জমি নদীর বুকে বিলিন হয়েছে। ফসলি জমি হারিয়ে নিঃস্ব হচ্ছে কৃষকেরা আর হাতিয়ে নিচ্ছে বালু ব্যবসায়ীরা লক্ষ লক্ষ টাকা। ক্ষমতার দাপটে তারা যৌথভাবে বাঙ্গালী নদী থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। সাধারণ মানুষ প্রতিবাদ করতে গেলে তারা ভয়ভীতি ও হুমকির শিকার হয়। তাই তারা নিরব ভূমিকায় আছেন।

ভয়ে নাম প্রকাশের অনিচ্ছুক অনেক ব্যক্তি জানান, আমরা বালু উত্তোলনে বাধা দিতে গেলে আমাদের বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি, হুমকি ও মামলার ভয় দেখায়। বালু উত্তোলনকারীরা আমাদের বলে উপর মহলের সাথে কথা বলে বালু উত্তোলন করছি। এখানে কোন সাংবাদিকও ফিরে তাকায় না। এখানে কারও বাধা দেওয়ার ক্ষমতা নেই। বাঙ্গালী নদী থেকে ডেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করার ফলে আমাদের শতাধিক বিঘা জমি নদীর গর্ভে চলে গেছে। প্রশাসনকে জানিয়েও আমাদের কোন কাজ হয় নাই। আর এভাবে বালু উত্তোলন চলতে থাকলে নদীর দুই তীরের আরো শতাধিক বিঘা ফসলি জমি নদীর গর্ভে বিলিন হয়ে যাবে। তাই সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে উর্দ্ধতন কর্মকতার দৃষ্টি আর্কষন করছি আমরা আমাদের ফসলি জমি রক্ষা করার জন্য ব্যবস্থা গ্রহন করবেন।

ধুনট উপজেলা নির্বাহি কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা জানান, বথুয়াবাড়ী থেকে পেঁচিবাড়ী এলাকা পর্যন্ত বাঙ্গালী নদী থেকে বালু উত্তোলনের বিষয়টি আমার জানা নেই। সরেজমিনে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর