1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৫:১৮ অপরাহ্ন

বগুড়ায় হামলা মামলার প্রতিবাদে বিএনপির সংবাদ সম্মেলন

  • আপডেট এর সময় : রবিবার, ৫ জানুয়ারী, ২০২০
  • ৩৪০ বার দেখা হয়েছে

বগুড়া জেলা বিএনপির আহবায়ক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য গোলাম মোঃ সিরাজ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন, পুলিশ ও আওয়ামীলীগ পূর্ব পরিকল্পনা মোতাবেক শহরের শহীদ খোকন পার্কে ১লা জানুয়ারী ছাত্রদলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কর্মসূচী চলাকালে বিনা উস্কানীতে পুলিশ লাঠিচার্জ করেছে।

এ ঘটনায় পুলিশ উল্টো ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবকদলের নেতাকর্মীদের নামে মামলা করে গ্রেফতার ও বাড়ী বাড়ী তল্লাশী চালিয়ে হয়রানী করছে। শহীদ মিনারে জুতা পায়ে ওঠার অজুহাত তুলে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ মিছিল থেকে জেলা বিএনপি কার্যালয়ে হামলা করে কলাপসিপল গেট, খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের ছবি সম্বলিত দলীয় ব্যানার, ফেষ্টুন ভাংচুর ও ছিঁড়ে ফেলা হয়েছে। এতে বিএনপি নেতাকর্মী ও সমর্থকরা মর্মাহত।

এ ঘটনায় সদর থানায় জিডি করা হলেও আজও রেকর্ড করা হয়নি। পুলিশ জিডি রেকর্ড না করলে আদালতের আশ্রয় নেয়া হবে।

দলের ৭৫ জনের নাম উল্লেখ করে ৫০০-৬০০ জনের নামে পুলিশের মিথ্যা মামলা দায়ের, গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে এমপি সিরাজ বলেন, শহীদ মিনার অবমাননা মিথ্যাচার ছাড়া আর কিছুই নয়। তবুও কেউ যদি জুতা পায়ে ভুল করে উঠে থাকে সে জন্য আমি শহীদ পরিবারের কাছে ক্ষমা চাই এবং দুঃখ প্রকাশ করছি। তবে পুলিশ জুতা পায়ে শহীদ মিনারে উঠে লাঠিচার্জ করেছে এটা ভিডিও ফুটেজে প্রমাণিত।

বগুড়া প্রেসক্লাবে রোববার অনুষ্ঠিত ওই সংবাদ সম্মেলনে জিএম সিরাজ বলেন, ছাত্রদল শহীদ টিটু মিলনায়তনে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালনের জন্য পুলিশ সুপারের কাছে অনমুতি চেয়েছিল। কিন্তু সেখানে অনুমতি না দিয়ে প্রথমে আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে র‌্যালী পূর্ব জমায়েতের অনুমতি দিয়ে আবার আওয়ামীলীগ অফিসের পাশে শহীদ খোকন পার্কে অনুমতি দিয়ে সেখানেও লাঠিচার্জ প্রমাণ করে এটা ছিল পুলিশ ও আওয়ামীলীগের গেম প্লান। তাদের উদ্দেশ্য ছিল, ছাত্রদলের বৃহৎ র‌্যালী ও সমাবেশ যেন শান্তিপূর্ণভাবে শেষ না হতে পারে। তিনি বগুড়া জেলা পুলিশ সুপারের প্রতি সম্মান জানিয়ে তার উদ্দেশ্যে বলেন, লোকজন আমাকে ফোন করে বলে যে, আপনি চাঁদাবাজদের সাথে নিয়ে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ফিতা কাটেন। এটা বন্ধ করুন। আপনি সংশোধন হোন, সাধারণ মানুষের সাথে থাকুন।

তিনি বিএনপিসহ সকল গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলের কর্মসূচী পালনে বাধা না দেয়ার জন্য পুলিশ সুপারের প্রতি আহবান জানান এবং নেতাকর্মীদের প্রতি সব ধরনের হয়রানী ও গ্রেফতার বন্ধ করে গ্রেফতারকৃতদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবী করেন।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক অ্যাডভোকেট একেএম সাইফুল ইসলাম ও ফজলুল বারী তালুকদার বেলাল, বিএনপি নেতা রেজাউল করিম বাদশা, জয়নাল আবেদীন চাঁন, আলী আজগর তালুকদার হেনা, মাহবুবর রহমান বকুল, ডাক্তার মামুনুর রশিদ মিঠু, এমআর ইসলাম স্বাধীন, কেএম খায়রুল বাশার, সহিদ উন নবী সালাম, মনিরুজ্জামান মনি, মাফতুন আহমেদ খান রুবেল, শাকিল, নাজমা আক্তার, মোশারফ হোসেন স্বপন, লিটন শেখ বাঘা প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর