1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৭:১৮ পূর্বাহ্ন

বগুড়ায় হাসপাতাল থেকে করোনা রোগীর দুটি মোবাইল ফোন চুরি

  • আপডেট এর সময় : বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১
  • ১৩ বার দেখা হয়েছে

আব্দুল ওয়াদুদ, স্টাফ রিপোর্টারঃ বগুড়ায় করোনা আক্রান্ত মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রাজিবুল ইসলাম রাজনের (৩৮) দুটি মোবাইল ফোন চুরি হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার বগুড়া সদর থানায় একটি জিডি দায়ের করা হয়েছে। হাসপাতাল কতৃপক্ষ বলছে এর আগেও চুরির ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, দেশে করোনা ভাইরাসের প্রভাব শুরু হলে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছে। এরই মধ্যে হাসপাতাল চত্বরে মাদকসেবী, চোর, দালালদের আনাগোনাও বেড়ে যায়। এই কারণে হাসপাতালে ভর্তি রোগীর মাঝে মধ্যেই চুরির ঘটনা ঘটে। এর আগে হাসপাতালের পরিচ্ছন্নকর্মী করোনা রোগীদের জন্য অক্সিজের সিলিন্ডারেরর মিটার চুরির ঘটনা ঘটে এবং সেটি উদ্ধার ও থানায় মামলাও দায়ের হয়েছে। এরমাঝে আবারো করোনা রোগীর মোবাইল চুরির ঘটনা ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতাল সুত্রে জানা যায়, বগুড়া শহরের সুত্রাপুর এলাকার পৌর পার্কের দক্ষিণ গেট সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রাজিবুল ইসলাম রাজন করোনা আক্রান্ত হয়ে ৯ জুন বিকালে মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে ভর্তি হন। তিনি বুধবার রাতে হাসপাতালের মেডিসিন ওয়ার্ডে তার বেডের (বি-৩৭) বালিশের নিচে একটি ফিচার ফোন ও অপরটি এন্ড্রয়েড ভার্সনের ফোন দুথটি রেখে ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে উঠে ফোন নিতে গিয়ে ফোন খুঁজে পাননি। খোঁজাখুজি করে না পেয়ে তিনি স্বজনদেরকে জানান। স্বজনরা হাসপাতাল কতৃপক্ষকে জানালে তারা থানায় জিডি করতে বলেন।

রাজিবুল ইসলাম রাজন জানান, তাদের পরিবারের মোট ১১জন সদস্য করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে তার এক চাচা চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ৭জুন বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে মারা যান। এর দুদিন পর ৯ জুন তার এক ফুফুকে শজিমেক হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান। অপরদিকে তার বাবা- মা ও ভাতিজি আগে থেকেই মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ওই একই ওয়ার্ডে তার বাবা-মা ও ভাতিজিও চিকিৎসাধীন।

রাজনের ফুফু নাসিমা সুলতানা ছুটু জানান, করোনায় দুদিনের ব্যবধানে এক ভাই ও এক বোনের মৃত্যু এবং আরও কয়েকজন চিকিৎসাধীন থাকায় তার বাবার বাড়ির সবাই মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন। তিনি বলেন, ‘মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ভাতিজার দুথটি মোবাইল ফোন চুরি যাওয়ার ঘটনাটি জানার পর বৃহস্পতিবার সকালে ওই হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসক ডা. শফিক আমিন কাজলকে অবহিত করা হয়েছে। তিনি সবকিছু শুনে একটি জিডি করার পরামর্শ দেন। জিডি করা হয়েছে।

বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার শফিক আমিন কাজল জানান, পুরো হাসপাতালটি সিসিটিভির আওতাধীন। তারপরও চুরি হচ্ছে। তিনি জানান, এর আগেও কয়েকটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। হাসপাতাল থেকে ব্যবস্থা গ্রহণ করার কথাও তিনি জানান।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর