1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৩:৩৫ পূর্বাহ্ন

রাণীশংকৈলে ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে দূর্নীতি ও টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

  • আপডেট এর সময় : শনিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৩১৫ বার দেখা হয়েছে

রাণীশংকৈল ( ঠাকুরগাঁও) সংবাদদাতাঃ ঠাকুরগাওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুব আলমের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম, দূর্নীতি ও প্রকল্পের টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঐ ইউনিয়নের আ’লীগ সভাপতি গোলাম রব্বানী ও সাধারণ সম্পাদক বিশ্বনাথ রায়সহ এলাকাবাসি কিছুদিন আগে ইউএনও,জেলা প্রশাসক সহ বিভিন্ন দপ্তরে এ লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগে জানা যায়, ঐ ইউপি চেয়ারম্যান রাউতনগর- মিশনপাড়া-বিলপাড় পর্যন্ত রাস্তা, কেওটান পাকা রাস্তা থেকে কলিগাও ক্লাব মোড় পর্যন্ত রাস্তা, রামরায় চৌরাস্তা থেকে হোসেনগাঁও পর্যন্ত রাস্তা, হাড়িয়া থেকে লোলতই পাকা রাস্তা, চোড়ল বাজার থেকে হাজরা পুকুর পর্যন্ত প্রায় ৫ কি.মি রাস্তায় মাটি ভরাট প্রকল্পের দায়সারা কাজ করে প্রায় ১২ লক্ষ টাকা আত্মসাত করেন। এতে করে ঐ রাস্তাগুলিতে খানাখন্দ ফাটল সৃষ্টি হয়ে সেগুলি চলাচলের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। এ ছাড়াও তার বিরুদ্ধে ইউনিয়ন পরিষদ ও মসজিদের নামে একাধিক টি,আর এর প্রায় ৩ লক্ষ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ আছে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে ইতোমধ্যে জেলা প্রশাসক কর্তৃক ইউএনওকে তদন্তের জন্য চিঠি দেয়া হয়।

এ ব্যাপারে গত ৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার ইউএনও মৌসুমী আফরিদার কাছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ইতিমধ্যে আমি কৃষি কর্মকর্তাকে প্রধান করে ৫ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে দিয়েছি। তবে, কমিটি প্রধান এর মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হবার কারনে আপাতত তাদের কাজ স্থগিত আছে। তিনি সুস্থ হলে শীঘ্রই তদন্ত কাজ সম্পন্ন করা হবে।

কমিটির সদস্য উপ-সহকারি প্রকৌশলি তাজউদ্দীন বলেন, আমি অভিযোগের বিষয়টি জেনেছি তবে কমিটির প্রথম দফা কার্যক্রমে আমি উপস্থিত থাকতে পারিনি। পরবর্তিতে অবশ্যই থাকবো।

কমিটির প্রধান কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় দেবনাথ বলেন, আমরা তদন্তের কাজ শুরু করেছিলাম কিন্তু এর মধ্যে আমি করোনায় আক্রান্ত হবার কারনে আপাতত সে কার্যক্রম বন্ধ আছে। তবে আমি সুস্থ হলেইআগামি সপ্তাহের মধ্যে তদন্তের কাজ শুরু করা হবে।

এদিকে, এ অভিযোগের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর