1. [email protected] : Abdur Razzak : Abdur Razzak
  2. [email protected] : admin :
  3. [email protected] : BDNewsFast :
  4. [email protected] : Abdul Jolil : Abdul Jolil
  5. [email protected] : Nazmus Sawdath : Nazmus Sawdath
  6. [email protected] : Tariqul Islam : Tariqul Islam
শুক্রবার, ১৮ জুন ২০২১, ০৯:০২ পূর্বাহ্ন

রাণীশংকৈল হোসেনগাঁও ইউনিয়নে ভিজিডি চাল বিতরণে টাকা নেওয়ার অভিযোগ ।

  • আপডেট এর সময় : বুধবার, ১৩ মে, ২০২০
  • ৭২০ বার দেখা হয়েছে

রফিকুল ইসলাম সুজন, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধিঃ

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার হোসেনগাঁও ইউনিয়নের ইউপি সদস্য ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিজিডি চাল বিতরণে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সরজমিনে গিয়ে জানা গেছে ৯ নং ওয়ার্ডের মেম্বার আক্কেল আলী ও চেয়ারম্যানের সহযোগী টাকা আদায় কারী দুলাল ভিজিডি চাল বিতরণের সময় প্রত্যেকজনের কাছ থেকে ২০ টাকা করে আদায় করেন । এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য আক্কেল আলীর কাছে সরাসরি জানতে চাইলে তিনি চেয়ার ছেড়ে কথা না বলে পালিয়ে যান, পড়ে দুলালকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন আমরা চেয়ারম্যানের নির্দেশে টাকা আদায় করি এগুলো আমরা চা খাওয়ার জন্য নেই , আপনি কে? এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন আমি চেয়ারম্যানের সহযোগী তার সকল প্রকার টাকা আদায় করা আমার কাজ, আপনি কতদিন ধরে আছেন এখানে? তিনি বলেন আমি প্রায় ১০/১২ বছর ধরে আছি ,কেন টাকা নেন ? এটা চেয়ারম্যান সাহেব কে বলেন তিনি জানেন এসব !এমন যুক্তি তর্ক চলছিলো সাংবাদিক আর অভিযুক্তদের মধ্যে । পরে বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করতে কথা হয় কয়েকজন অসহায় ভিজিডি কার্ড ভুক্ত মহিলাদের সাথে তারা অভিযোগ করে বলেন আক্কেল মেম্বার আমাদের কাছে কেন টাকা নেন তা আমরা জানি না তবে আমরা গরীব মানুষ আমাদের যেটা বলে তাই শুনি কথা না শুনলে চাল দিবে না আমাদের তাই আমরা ২০ টাকা করে তাদের দেয় । ঐ সময় সেখানে উপস্থিত লোকজন সকলে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন । এ ব্যাপারে ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মাহবুব আলমের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন বিষয়টি আমি দেখছি , স্থানীয় উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী অফিসার মৌসুমী আফ্রিদা কে বিষয়টি অবগত করলে তিনি বলেন আপনারা লিখিত অভিযোগ দেন,পরে তিনি মাহবুব চেয়ারম্যান কে মুঠোফোনে কথা বলে বিষয়টি দেখতে বলেন। এদিকে স্থানীয় ইউপি আওয়ামীলীগ সভাপতি গোলাম রব্বানী বলেন এরকম ঘটনা ইতিপূর্বে একাধিকবার ঘটেছে আমরা কয়েকবার অভিযোগ দায়ের করেছি কোন লাভ হয়নি প্রশাসন সাংবাদিক সবাই তার কাছে জিম্মি , করোনা পরিস্থিতিতে এমন ঘটনা সত্যিই নেক্কারজনক বলে আমি মনে করি এটার সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হোক । এছাড়াও ত্রাণ বিতরণে অনিয়ম আর দুর্নীতির শেষ নেই বলেন এই আওয়ামী লীগ নেতা । বিষয়টি জেলা প্রশাসক ডঃ কে এম কামরুজ্জামান সেলিম মহোদয় কে অবগত করেন সংবাদ কর্মীরা , তবে এমন করোনা পরিস্থিতিতে সরকারের নির্দেশনা অমান্য করে ক্ষমতার দাপটে টাকা আদায় করে অসহায় সাধারণ মানুষগুলোকে লুটপাট করে খাওয়ার বিষয়টি সমালোচনার ঝড় তুলেছে এলাকায় , সরকারের প্রশাসনের বিশেষ সু-দৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী ও স্থানীয়রা ।

নিউজটি শেয়ার করে সকলের মাঝে ছড়িয়ে দিন

এই ক্যাটাগরির আরো কিছু খবর